মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩rd এপ্রিল ২০১৮

উৎপাদন থেকে শুরু করে খাবার টেবিল পর্যন্ত খাদ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চাই - খাদ্যমন্ত্রী


প্রকাশন তারিখ : 2018-04-03

প্রেস রিলিজ

             উৎপাদন থেকে শুরু করে খাবার টেবিল পর্যন্ত খাদ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চাই - খাদ্যমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২১ মার্চ ২০১৮

খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট মোঃ কামরুল ইসলাম বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার ১৯৯৬ সালে দেশে খাদ্য ঘাটতি নিয়েই রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এসেছিল । এরপর দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ রেখে এসেছিল। ২০০৯ সালে যখন আবার ক্ষমতায় আসে তখন আবার দেশে খাদ্য ঘাটতি ছিল। সেই ঘাটতি পূরণ করে দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। বাংলাদেশ ইতিহাসে প্রথম বারের মতো শ্রীলংকায় চাল রপ্তানী করেছে।  আজ সকাল ১০.৩০ টায় ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় অনুষ্ঠিত “ফুড এ্যান্ড এগ্রো ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো-২০১৮” এর উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন,  ২০১৩ সালে খাদ্য সংক্রান্ত আইন অনুমোদন দেয়া হয়েছে এবং ২০১৫ সালে  বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য র্কতৃপক্ষ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আইনটি শ্রীলঙ্কা ও ভারতের আদলে তৈরী করা হয়েছে। ১৮টি মন্ত্রণালয় এবং ৪৮০ টি সংস্থার সমন্বয়ে এ র্কতৃপক্ষ কাজ করে থাকে। বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য র্কতৃপক্ষের কার্যক্রমের কথা তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হবার পর বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য র্কতৃপক্ষের যে অর্জন তা ভারত ও শ্রীলংকাও করতে পারেনি। সেসব দেশেও আইনটি কার্যকর করতে তিন থেকে চার বছর সময় লেগেছে।

মন্ত্রী বলেন, গুড়ো দুধ সহ বিদেশ থেকে যেসমস্ত খাবার আসছে তারও নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য র্কতৃপক্ষ। বিদেশি সেসমস্ত খাবার নিরাপদ কিনা তা তারা পরীক্ষা করে দেখবে। ইতোমধ্যে ১০টি ল্যাবরেটরিকে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে আমাদের নিজস্ব ল্যাবরেটরি তেরী করা হবে। তিনি বলেন, উৎপাদন থেকে শুরু করে খাবার টেবিল পর্যন্ত খাদ্যের নিরাপত্তা নিশ্তিত করতে চাই আমরা। এজন্য জনসচেতনতা দরকার। আর এই কাজটিকেই এখন অধিক গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।  

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠা, তার বিচক্ষণতা ও সুযোগ্য নের্তৃত্বের ফলে দেশ এখন উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা অর্জন করেছে। দেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে। যদি তার ক্ষমতার ধারাবাহিকতা না থাকে, রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা যদি দুর্নীতিবাজদের কবলে পড়ে, যারা রাষ্ট্রের মঙ্গল চায় না তাদের হাতে যায় তাহলে এইসব উন্নয়ন মুখ থুবরে পড়বে।

মিস মেহেরুন এন ইসলাম- এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য র্কতৃপক্ষের চেয়ারম্যান জনাব মোহাম্মদ মাহফুজুল হক, রুরাল ডেভেলপমেন্ট একাডেমি, বগুড়া এর মহাপরিচালক জনাব এম এ মতিন, ঢাকা চেম্বার অব কমার্স এর প্রেসিডেন্ট জনাব আবুল কাশেম খান সহ আরও অনেকে।

                                                                                                                                                                                 

স্বাক্ষরিত/-

২১.০৩.১৮

সুমন মেহেদী

সিনিয়র তথ্য অফিসার ও

জনসংযোগ কর্মকর্তা

খাদ্য মন্ত্রণালয়

০১৯ ৩৭ ৪৫ ৫২ ১৮


Share with :

Share with :

Facebook Facebook