মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৫ এপ্রিল ২০১৮

মধুপুর, ময়মনসিংহ এবং আশুগঞ্জে ৩ টি স্টিল রাইস সাইলো নির্মাণ করা হচ্ছে- খাদ্যমন্ত্রী


প্রকাশন তারিখ : 2018-04-05

প্রেস রিলিজ

                     মধুপুর, ময়মনসিংহ এবং আশুগঞ্জে ৩ টি স্টিল রাইস সাইলো নির্মাণ করা হচ্ছে- খাদ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ০৪ এপ্রিল ২০১৮

খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট মোঃ কামরুল ইসলাম বলেছেন, এই মুহুর্তে সরকারি গোডাউন ও সাইলোতে খাদ্যশস্যের মোট ধারণ ক্ষমতা আছে প্রায় ২১ লক্ষ মে.টন। এ বছরের শেষে তা দাড়াবে প্রায় ২২ লক্ষ মে.টন এর কাছাকাছি। ২০২০ সাল নাগাদ তা বেড়ে প্রায় ২৭ লক্ষ ৪৫ হাজার মে.টন এবং ২০২৫ সাল নাগাদ ধারণ ক্ষমতা প্রায় ৩০ লক্ষ মে.টনে দাড়াবে। আজ সকাল ১১.৩০ টায় প্যানপ্যাসিফিক সোনারগা হোটেলে “খাদ্য অধিদপ্তর এবং তমা কন্সট্রাকশন কোম্পানী লিমিটেডের মধ্যে আধুনিক খাদ্য সংরক্ষণাগার প্রকল্পের আওতায় মধুপুর, ময়মনসিংহ এবং আশুগঞ্জে ৩ টি স্টিল রাইস সাইলো নির্মাণের চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, অতীতের চেয়ে এখন খাদ্যশস্যর উৎপাদন বেড়েছে। বছরে প্রায় ৩ কোটি ৬০ লক্ষ মে.টন চাল এবং প্রায় ২৬ লক্ষ মে.টন গম উৎপাদন হয়। এসব খাদ্যশস্য সংরক্ষণ করার জন্য আধুনিক খাদ্য সংরক্ষণাগার বাড়াতে হবে। আর সেই পরিকল্পনা নিয়েই আমরা অগ্রসর হচ্ছি।

আধুনিক খাদ্য সংরক্ষণাগার প্রকল্পের আওতায় ৩ টি প্যাকেজে ৮ টি সাইলো নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে ৬ টি চালের এবং ২ টি গমের সাইলো। প্যাকেজ W-3 এর আওতায় ময়মনসিংহ, মধুপুর ও আশুগঞ্জে ১ টি করে মোট ৩ টি সাইলো নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে ময়মনসিংহ এ নির্মিত সাইলোর ধারণ ক্ষমতা ৪৯ হাজার ৬৫০ মে.টন, মধুপুর এ নির্মিত সাইলোর ধারণ ক্ষমতা ৪৮ হাজার ৩২০ মে.টন এবং আশুগঞ্জে এ নির্মিত সাইলোর ধারণ ক্ষমতা ১ লক্ষ ৮ হাজার মে.টন। ৩ টি সাইলোর সর্বমোট ধারণ ক্ষমতা হবে ২ লক্ষ ৫ হাজার ৯৭০ মে.টন।

বন্যা, সাইক্লোন ইত্যাদি প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করার জন্য দীর্ঘ মেয়াদী (২-৩ বছর) কৌশলগত মজুদ সংরক্ষণ করার উদ্দেশ্যে বিশ্বব্যাংকের সহযোগিতায় স্টিল সাইলো নির্মাণের প্রকল্প হাতে নেয় সরকার। এই স্টিল সাইলোর অন্যতম সুবিধা হচ্ছে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আর্দ্রতা ও তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে ৩ বছর পর্যন্ত খাদ্যশস্য সংরক্ষণ করা যায়। এছাড়া রাসায়নিক ও কীটনাশক ছাড়াই খাদ্যশস্য সংরক্ষণ করায় পুষ্টিমান ও গুনগত মান বজায় থাকে।  

খাদ্য সচিব জনাব শাহবুদ্দিন আহমদ এর সভাপতিত্বে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে খাদ্য অধিদপ্তরের পক্ষে চুক্তি সাক্ষর করেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জনাব গাজীউর রহমান এবং তমা কন্সট্রাকশন কোম্পানী লিমিটেডের পক্ষে চুক্তি সাক্ষর করেন তমা কন্সট্রাকশন কোম্পানী লিমিটেডের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক জনাব আতাউর রহমান ভূইয়া।

উল্লেখ্য, ১ম পর্যয়ে প্রতিযোগীতামূলক দরপত্রের মাধমে Toma Construction & Co. Ltd (TCCL), Bangladesh in Joint Venture with FRAME, Italy with Sub-Contractor: Tornum AB, Sweden এর সাথে প্রাকেজ W-3 এর আওতায় ময়মনসিংহ, মধুপুর ও আশুগঞ্জে ৩ টি স্টিল রাইস সাইলো নির্মাণের চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি জনাব আব্দুল ওয়াদুদ দারা, এমপি, খাদ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জনাব আরিফুর রহমান অপু সহ খাদ্য মন্ত্রণালয়, খাদ্য অধিদপ্তর এবং তমা কন্সট্রাকশন কোম্পানী লিমিটেডের  উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ। 

স্বাক্ষরিত/-

০৪.০৪.১৮

সুমন মেহেদী

সিনিয়র তথ্য অফিসার ও

জনসংযোগ কর্মকর্তা

খাদ্য মন্ত্রণালয়

০১৯ ৩৭ ৪৫ ৫২ ১৮


Share with :

Share with :

Facebook Facebook